বানান

বাধা নাকি বাঁধা : কোনটি সঠিক ও কেন?

বাধা নাকি বাঁধা, এই দুইয়ের মধ্যে কোনটি সঠিক বানান সেটা নিয়ে আমরা অনেকেই দ্বিধায় পড়ে যাই। চলুন আজীবন মনে রাখার মতো একটি সহজ উপায় জেনে নিই।

বাধা—বাধা শব্দের অর্থ হচ্ছে প্রতিবন্ধকতা, অন্তরায়, বিঘ্ন, নিষেধ, উপদ্রব, সংগঠিত হওয়া, সায় না পাওয়া, কষ্ট বোধ হওয়া, আটক হওয়া, বুঝতে অসুবিধা হওয়া, জড়িয়ে যাওয়া, খণ্ডন করা। √বাধ্+অ+আ = বাধা।
উপরিউক্ত অর্থে বাধা শব্দটি ব্যবহৃত হবে।
দৃষ্টান্ত :
১. ভালো কাজের পদে পদে বাধা থাকে।
২. অশিক্ষা দেশের উন্নতির পথে বড়ো বাধা।
৩. সে আমার কোনো বাধা মানেনি।
৪. বিবেকের বাধা পেয়ে আমি ফের তার কাছে যাইনি।
৪. আমার গলায় মাছের কাঁটা বেধেছে।
৫. বয়সের ভারে তার কথা বেধে যাচ্ছে।
৬. তার বাধা বাধা কথা আমার বুঝতে কষ্ট হয়।
৭. সে এক মহা ঝামেলা বাধিয়েছে।

বাঁধা—বাঁধা শব্দের অর্থ হচ্ছে আবদ্ধ করা, তৈরি করা, রচনা করা, একত্র করা, সংহত হওয়া, সাহস সঞ্চয় করা, পাকা করা হয়েছে এমন, ঋণের জামিনরূপে গচ্ছিত সম্পত্তি। বাঁধা শব্দের উৎপত্তি সংস্কৃত বন্ধক থেকে।
শুধু উপরিউক্ত অর্থে বাঁধা শব্দটি ব্যবহৃত হবে।
দৃষ্টান্ত :
১. নদীর তীরে নৌকা বাঁধা।
২. ঘর বাঁধা একদিনের কাজ নয়।
৩. গুরুপদ গুপ্ত একখানা গান বেঁধেছেন।
৪. খুচরা ব্যাবসাদাররা জোটবেঁধে দাম বাড়াচ্ছে।
৫. আশায় বুক বেঁধে মানুষ বেঁচে থাকে।
৬. গ্রামের বাঁধানো ঘাটে সবাই গোসল করতে আসে।
৭. ঋণ পরিশোধ না করলে বাঁধা বিক্রি করে টাকা উসুল করো।

মনে রাখার কৌশল : বাঁধা (বন্ধন অর্থে) বানানে চন্দ্রবিন্দু আছে। মনে রাখবেন যে, বাঁধতে দড়ি লাগে, আর চন্দ্রবিন্দুটা সেই দড়ি। এটা মনে রাখলে অন্যটা আপনিতেই মনে থাকবে।

বাধা নাকি বাঁধা, কোনটি কোথায় লিখবেন সেটা বুঝতে পেরেছেন আশা করি।

সম্পূর্ণ দেখুন

ফারহান সাদিক শাহীন

পরিচালক, প্রমিত বাংলা চর্চা | শিক্ষার্থী (স্নাতক), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

মন্তব্য করুন

আরও পড়ুন
Close
Back to top button
Close